Translate

There was an error in this gadget

Thursday, 17 July 2014

কানাডায় বিমানবন্দরে হেনস্থার শিকার ঋতুপর্ণা

 বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় দুপুর সাডে ১২টায় কানাডার টরেন্টোর পিয়ারসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে হেনস্থার শিকার হলেন ভারতের জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তা। টরন্টোয় নামার পর বিমানবন্দরেই প্রায় সাড়ে পাঁচ ঘণ্টা টানা জেরা করা হয় তাকে। ২০১৫ সাল পর্যন্ত ভিসা থাকা সত্ত্বেও বলা হয়, তার ভিসার মেয়াদ ফুরিয়ে গেছে। ব্যাগ খুলিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করা হয় জিনিসপত্র, কেড়ে নেয়া হয় মোবাইল। এমনকি অপমানিত ঋতুপর্ণা কেঁদে ফেললে তাকে মানসিক রোগীর তকমা দিয়ে হাসপাতালে পাঠানোর হুমকিও দেয়া হয়। শেষ পর্যন্ত তাকে কানাডায় ঢোকার অনুমতি দেয়া হলেও পুরো ঘটনায় অসন্তুষ্ট ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রক কানাডা সরকারের কাছে কূটনৈতিক প্রতিবাদপত্র পাঠিয়েছে। ঋতুপর্ণা জানান, জেরা চলাকালীন তার স্বামী সঞ্জয় চক্রবর্তী সিঙ্গাপুর থেকে তাকে ফোন করেছিলেন। কিন্তু ফোন ধরতেই তার মোবাইল দুটি কেড়ে নেয়া হয়। এক অভিবাসন কর্মী বলেন, ফোনে কথা বলা যাবে না। লাইন কেটে যাওয়ার আগে একথা শুনে ফেলেন সঞ্জয়। তিনি সঙ্গে সঙ্গে কানাডায় ভারতীয় দূতাবাসে যোগাযোগ করেন। উত্তর আমেরিকার বঙ্গ সম্মেলনে যোগ দিতে টরেন্টো গেছেন ঋতুপর্ণা। ওই বঙ্গ সম্মেলনের চলচ্চিত্র উৎসব শুরু হচ্ছে তার অভিনীত রেশমী মিত্রের ছবি ‘মুক্তি’ দিয়ে। ঋতুপর্ণার সঙ্গে ছিলেন তারা মাসি-শাশুড়ি ৮০ বছর বয়সী নীলিমা চট্টোপাধ্যায়। তিনি কানাডারই নাগরিক। উল্লেখ্য, ১১ বছর আগে টরেন্টোর এই বিমানবন্দরেই হেনস্থা হয়েছিলেন ভারতীয় অভিনেতা কমল হাসন। শাহরুখ খান ও ইরফান খানও একই ধরনের সমস্যার মুখে পড়েছেন মার্কিন বিমানবন্দরে। এবার শিকার হলেন জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তা।see more stories

অভিনেত্রী মিতা নূরের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

 জনপ্রিয় অভিনেত্রী মিতা নূরের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ  সোমবার ভোরে রাজধানীর গুলশানের বাসার ড্রয়িংরুম থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। আজ ভোরের দিকে মিতা নূরের পরিবারের লোকজন থানায় ফোন করে পুলিশ ডাকে। সকাল পৌনে সাতটার দিকে পুলিশ মিতা নূরের গুলশান-১-এর ১০৪ নম্বর রোডের ১৬ নম্বর বাসার ড্রয়িংরুমের সিলিং ফ্যান থেকে মিতা নূরের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে। এ সময় বাড়িতে তার পরিবারের অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
ঘটনা সম্পর্কে তাত্ক্ষণিকভাবে পরিবারের সদস্যদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি। পুলিশও কিছু জানায়নি। সংশ্লিষ্টদের বক্তব্য নেওয়ার চেষ্টা চলছে। আফজাল হোসেনের নির্দেশনায় আশির দশকের শুরুতে অলিম্পিক ব্যাটারীর বিজ্ঞাপনে মডেল হবার সুবাদে রাতারাতিই তারকা বনে যান মিতা নূর। এই বিজ্ঞাপনের ‘আলো আলো বেশি আলো’ জিঙ্গেলটি সে সময় ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা পায়। গতকাল পর্যন্ত তিনি কায়সার আহমেদ পরিচালিত এটিএন বাংলার প্রচার চলতি ধারাবাহিক নাটক ‘উত্তরাধিকার’ এর শুটিং করছিলেন।   মাই টিভিতে ‘চটপটি আড্ডা’ শিরোনামের একটি রান্নার অনুষ্ঠান নিয়মিত উপস্থাপনা করা শুরু করেছিলেন তিনি। ‘ কুলসন নানা পদের ইফতার’ নামক আরেকটি অনুষ্ঠানেরও উপস্থাপনা করেছিলেন তিনি। এ অনুষ্ঠানের প্রথম ও শেষপর্বে তাকে উপস্থাপনা করতে দেখা যাবে। অন্যদিকে, স্কয়ার গ্রুপের সৌজন্যে ‘জিরো ক্যাল’ নামের রান্নার অনুষ্ঠানে তাকে মৌটুসী বিশ্বাসের অতিথি হিসেবে দেখা যাবে। কিছুদিন আগে তার একমাত্র ছেলে প্রিয়’র ‘ও’ লেভেল ফাইনাল পরীক্ষা শেষ হয়েছে । এরই মধ্যে ২-৩টি ঈদের খন্ড নাটকের শুটিং করেছিলেন তিনি। এশিয়ান টিভিতে তার অভিনীত ইদ্রিস হায়দার পরিচালিত প্রচার চলতি ডেইলি সোপ ‘সেকেন্ড ইনিংস’-এ লন্ডন ফেরত একজন তরুণীর ভূমিকায় অভিনয় করছিলেন। নাটকে তার অসাধারণ অভিনয় দর্শকের কাছে ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা পায়। তার প্রচার চলতি অন্য ধারাবাহিক নাটকগুলোর মধ্যে রয়েছে এটিএন বাংলায় ধারাবাহিক নাটক ‘কানামাছি ভো ভো’  , ‘স্কুল মাস্টার’  , ‘কুসুম কলি’ , ‘ভোমরাদহ কলেজ’।
see more on https://www.facebook.com/AiPageaAtoMoja

রোদ-মেঘের খেলায় মত্ত নিলয় শখ

বর্ষার এ মওসুমের মেঘলা আকাশ যেমন করে বৃষ্টির নিশ্চয়তা দেয় না, ঠিক তেমনি নিলয়-শখের নিশ্চল হাসিমাখা মুখাবয়ব দেখেও বলা যাবে না তাদের মাঝে মিল আছে নাকি নেই! শোবিজের সম্ভাবনাময় এ দুই তারকা একে অপরের প্রেমে পড়ার গল্প বেশ পুরনো। দু’জনার মধ্যে এই প্রেমের ভাঙাগড়া কেন্দ্রিক রোদ-মেঘের খেলাও এখন আর কারোরই অজানা নয়। শখ তো বেশ ক’বার নিলয়ের বিরুদ্ধে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগও তুলেছেন। বলেছেন, নিলয়ের সঙ্গে আর নয়। অনেক হয়েছে। এর দু’দিন বাদেই সেই অকাট্য অভিযোগ মুছে গেল। দু’জনেই হাস্যোজ্জ্বল হয়ে নব উদ্যমে মিডিয়ায় কাজ শুরু করলেন। ঠিক একই চিত্রনাট্যে গেল দুই বছরে বহুবার অভিনয় করতে দেখা গেছে গ্ল্যামার অঙ্গনের অন্যতম মিষ্টি এই প্রেমিক জুটিকে। অভিযোগ রয়েছে, শুধু এই প্রেম কেন্দ্রিক দু’জনার ধারাবাহিক ছেলেমানুষির কারণেই বাংলালিংকের নতুন বিজ্ঞাপনেও এখন আর এ দু’জনকে জুটি হিসেবে দেখা যাচ্ছে না। এদিকে নিলয়-শখের এমন ধারাবাহিক মান-অভিমানের বিষয়টিকে স্রেফ ছেলেমানুষি বলেই অভিহিত করছেন কাছের মানুষরা। আবার অনেক কাছের মানুষ বলছেন ভিন্নকথা। শখ-নিলয় কেবল ভালবাসাতেই আর অবদ্ধ নেই। দু’জন এখন ভাঙা-গড়ার খেলায় মেতেছেন! যার কারণে দু’জনকে কিছু সময় দেখা যায় খুব রোমান্টিক জুটি হিসেবে। আর কিছু সময় দেখা যায় সাপ-নেউলে সম্পর্কে। অন্যদিকে তাদের এই প্রেম কেন্দ্রিক রোদ-মেঘের খেলায় নিয়মিত খেসারত দিতে হচ্ছে নাটক, বিজ্ঞাপন এমনকি চলচ্চিত্র নির্মাতা-প্রযোজকদের। বিশেষ করে গেল এক বছর ধরে মাসে অন্তত একবার করে দু’জনার মধ্যে সম্পর্ক ভাঙছে আর জোড়া লাগছে নিয়মিত। মজার বিষয় হলো, প্রতিবারই শেষবারের মতো সম্পর্ক শেষ হয়। আবার প্রতিবারই সব বিভেদ ভুলে সুন্দর আগামী গড়ার লক্ষ্যে দু’জনের মিলন ঘটে। যার ফলে গেল এক বছর ধরে অসংখ্য নাটক-বিজ্ঞাপন এবং চলচ্চিত্র নির্মাতা বিপদে পড়েছেন এ জুটিকে নিয়ে কাজ করতে গিয়ে। এর মধ্যে উদাহরণ হিসেবে চলে আসে অনেক নাম। তবে মিডিয়ায় এখন সবচেয়ে বড় উদাহরণ হিসেবে সবার কাছে চলে আসে জনপ্রিয় বিজ্ঞাপন নির্মাতা সানিয়াত হোসেনের প্রথম চলচ্চিত্র ‘অল্প অল্প প্রেমের গল্প’ এবং এশিয়ান টিভিতে প্রচার চলতি জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘ভালোবাসার কাহিনী’র নাম। বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, নিলয়-শখকে জুটি করে নির্মাণাধীন বড় বাজেটের চলচ্চিত্র ‘অল্প অল্প প্রেমের গল্প’ গেল প্রায় তিন বছর ধরে শুটিং করেও নির্মাতা শেষ করতে পারেননি এখনও। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আর মাত্র দু’দিনের শুটিং করলেই শেষ হবে অনেক আলোচিত এ চলচ্চিত্রটি। অথচ নিলয়-শখের রোদ-মেঘ খেলা কেন্দ্রিক মান-অভিমানের ধারাবাহিক তোপের মুখে পড়ে এই চলচ্চিত্রটি গেল এক বছর ধরে শেষ হয়েও হচ্ছে না শেষ। তবে পুরো শুটিং-ডাবিং শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত এ বিষয়ে নির্মাতা পক্ষ মুখ খুলতে নারাজ। এদিকে এর চেয়ে করুণ অবস্থায় পড়তে হয়েছে এশিয়ান টিভি কর্তৃপক্ষকে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা জানান, তাদের প্রচার চলতি জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘ভালোবাসার কাহিনী’র পুরোটাই নির্মিত হচ্ছে নিলয়-শখ জুটিকে ভিত্তি করে। অথচ এই দু’জনের প্রেম কেন্দ্রিক ভাঙা-গড়ার খেলায় পড়ে এ পর্যন্ত অন্তত ২০-২৫ বার বিপাকে পড়তে হয়েছে নির্মাতাপক্ষকে। যার ফলে শিগগিরই ধারাবাহিকটি শেষ করে দেয়ার পরিকল্পনাও করছে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। এদিকে জানা গেছে, টিভিপর্দায় বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠা এই জুটিকে নিয়ে আসছে ঈদে উল্লেখযোগ্য কোন নাটক-টেলিফিল্ম নির্মাণ হচ্ছে না। কারণ, সবার একটাই ভয়, একদিন শুটিং করে যদি দু’জনের মধ্যে আবার ঝগড়া লাগে তবে তো পুরো শুটিংই বাতিল করতে হবে। সব মিলিয়ে অনেক নির্মাতার ভাষ্য, এ রোমান্টিক জুটিকে নিয়ে এখন কাজ করা মানে টাকা দিয়ে আতঙ্ক কিনে আনা। যার ফলে ক্রমশই মিডিয়া থেকে ছিটকে পড়ছেন উদীয়মান দুই প্রেমিক তারকা। এদিকে সর্বশেষ জানা যায়, নিলয়-শখ প্রায় ২০ দিনের মান-অভিমান ভেঙে গেল সপ্তাহে আবার মিলেছেন। তবে এই মিল আবার কখন অমিল হয়ে বসে সেটাই দেখার বিষয়। যদিও দু’জনার হাতে যৌথ কাজের সংখ্যা এখন নিতান্তই অনুল্লেখযোগ্য। উল্লেখ্য, এসব মান-অভিমানের বিষয়ে বরাবরই নিলয় চুপ থেকেছেন গণমাধ্যমে। অন্যদিকে বরাবরই নিলয়ের বিরুদ্ধে নানা ন্যক্কারজনক অভিযোগ করে আসছেন শখ। শুধু তাই নয়, অন্য নায়িকাদের সঙ্গে অভিনয় করতেও বাধা হিসেবে বরাবরই সামনে ছিলেন প্রেমিকা শখ। আর এসব মিলিয়ে মিডিয়ায় প্রচলিত রয়েছে, অতি সম্ভাবনাময় মৃদুভাষী নিলয় এখন শখের খেলার পুতুল হিসেবে আটকে আছেন।
see more on https://www.facebook.com/AiPageaAtoMoja

দুই ফকিরের কথোপকথন...!!

১ম-
ফকিরঃ “আইজকা মতিঝিলে একখান
১০০ টাকার
নোট
কুড়ায়ে পাইছিলাম...!!

২য়-ফকিরঃ “কস
কি..??
তোর দেখি বিরাট
ভাইগ্য...!!”

১ম-
ফকিরঃ “আরে না,
নোট খান
জাল আছিল, তাই
ফালাইয়া দিছি..!!”

২য়-ফকিরঃ “জাল
আছিল
ক্যামনে বুঝলি...??”




↓ ↓

১ম ফকিরঃ “তুই
কোনোদিন ১০০
টাকার নোটে ১
এর পরে তিনটা শূন্য
দেখছস....?

see more on https://www.facebook.com/AiPageaAtoMoja

জার্মান ফুটবলার মেসুত ওজিল

বিশ্বকাপ খেলে পাওয়া সব আয় গাজার শিশুদের জন্য দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন জার্মান ফুটবলার মেসুত ওজিল। বিশ্বকাপ জেতায় জার্মান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন প্রত্যেক খেলোয়াড়কে তিন লাখ ইউরো দেয়ার ঘোষণা দেয়। আর সেমিফাইনাল জেতায় প্রত্যেকে আরো দেড় লাখ ইউরো পাচ্ছেন।আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধে খেলতে নামার আগে কোরআন তেলাওয়াত করে সামাজিক যোগযোগ সাইটের আলোচনায় আসেন ওজিল। এছাড়া রোজা রেখেই বিশ্বকাপ খেলেছেন এই আর্সেনাল তারকা। ইসরাইলকে সমর্থন দেয়ায় ফিফা কর্মকর্তাদের সঙ্গে হ্যান্ডশেক না করে ‘বিতর্কের’ জন্ম দেন তুর্কি বংশোদ্ভূত এই মুসলিম। প্রসঙ্গত, গত ৭ জুলাই গাজায় বর্বর বিমান হামলা শুরু করে ইসরাইল। এতে এখন পর্যন্ত ২০৮ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন দেড় সহস্রাধিক। নিহতদের ৮০ ভাগই নারী-শিশু ও বেসামরিক ফিলিস্তিনি।
See more